দেওয়ানগঞ্জে ভুয়া সহযোগী মুক্তিযোদ্ধার বিক্রির অভিযোগে গ্রেপ্তার ২

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জে ভুয়া সহযোগী মুক্তিযোদ্ধার সনদ বিক্রির অভিযোগে দুইজন’কে আটক করেছে দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ। ভুয়া মুক্তিযোদ্ধার সনদ বিক্রির সময় আটক করা হয় তাদের

আটককৃত আবুল কাশেম উপজেলার উত্তর মোয়ামারী গ্রামের সিরাজুল মোল্লার ছেলে ও মোজাম্মেল হক আকন্দ (৬৫) গুডু মাতাব্বর ডাংধরা ইউনিয়নের হারুয়াবাড়ী মধ্যপাড়া গ্রামের জাবেদ আলী আকন্দের ছেলে।

- Advertisement -

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ২৪ নভেম্বর রাতে ভুয়া সহযোগী মুক্তিযোদ্ধা সনদ টাকার বিনিময়ে বিক্রি করছে এমন প্রেক্ষিতে সানন্দবাড়ী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে এক সংবাদ আছে। গোপন এই সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ সাহসী অভিযান চালায়। পুলিশের অভিযানে ভুয়া সনদ বিক্রির সময় আটক হয় দুইজন। আটকের সময় সহযোগী সনদপত্রসহ তাদের কাছেই ছিল।

জানা গেছে, দীর্ঘদিন থেকে একটি চক্র উপজেলার বিভিন্ন এলাকা চিহ্নিত করে ভুয়া সহযোগী মুক্তিযোদ্ধার সনদ বিক্রি করে আসছে। যাদের কাছে এই সনদ বিক্রি করছে তাদের মাসিক ১০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে এই প্রলোভনে বিক্রির সংখ্যা বেড়ে চলছে। উপজেলার ডাংধরা ইউনিয়নে অসংখ্য পরিবারের কাছ থেকে সাড়ে তিন হাজার টাকা নিয়ে সহযোগী মুক্তিযোদ্ধা সনদ বিক্রি করছে। নিম্নআয়ের এসব সহজ সরল মানুষ তাদের প্রলোভনে প্রলুব্ধ হয়ে প্রতারিত হচ্ছে।

মডেল থানার ওসি মুহাম্মদ মহব্বত কবীর জানান, সহযোগী মুক্তিযোদ্ধা সনদ বিক্রির অভিযোগে দুইজনকে ইতিমধ্যে আটক করেছি। দীর্ঘদিন থেকেই অভিযোগ পাচ্ছিলাম মুক্তিযোদ্ধা সনদ বিক্রির। আমরা সুযোগের অপেক্ষায় ছিলাম। গতকাল অভিযান পরিচালনা করে তাদের কে হাতেনাতে আটক করি। আজ ২৫ নভেম্বর তাদের জামালপুর কোর্টে পাঠানো হয়েছে।

আপনার মতামত দিন
- Advertisement -