নৌকায় ভোট দেওয়ায় বাড়ীতে প্রতিপক্ষের হামলা

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জে পঞ্চম ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকায় ভোট দেওয়ার অপরাধে প্রতিপক্ষের কর্মী-সমর্থকদের বাড়িঘরে হামলা-ভাঙচুর ও মারধর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। হামলাকারী সকলেই স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুল কালাম আজাদের সমর্থক।

গতকাল  ৭ জানুয়ারী (শুক্রবার) দেওয়ানগঞ্জ  উপজেলার হাতীভাঙ্গা ইউনিয়নের আমখাওয়া পশ্চিম মাঝিপাড়া গ্রামের মাঝিপল্লীতে এঘটনা ঘটে। এসময় জেলে গোবিন্দ দাস (৫০) ও শুভচন্দ দাসসহ (৬৫) বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন। এঘটনায় স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আবুল কালাম আজাদকে প্রধান আসামি করে ২৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়।

- Advertisement -

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পঞ্চম ধাপের ইউপি নির্বাচনে এ উপজেলায় চারটি ইউপিতে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। অন্যান্য ইউনিয়নের চেয়ে হাতিভাঙ্গা ইউপিতে নির্বাচনের প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছিল সবার আলোচনায়। তাই নৌকা প্রতীকের প্রতিপক্ষ প্রার্থী মাহমুদা চৌধুরীকে বিভিন্নভাবে পেছনে ফেলার চেষ্টা করছে স্বতন্ত্র প্রার্থী মোটরসাইকেল প্রতীকের আবুল কালাম আজাদ। ৫ জানুয়ারি নির্বাচনে এই দুই প্রার্থীর মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়। কিন্তু একটি অপ্রীতিকর ঘটনার কারণে হাতিভাঙ্গা ইউনিয়নের একটি কেন্দ্রে ভোট স্থগিত ঘোষণা করা হয়। ভোট স্থগিত হওয়ায় নৌকা প্রতীকে ভোট আবারো তমুল ভোট যুদ্ধে দুই প্রার্থী। প্রচারণার এক পর্যায়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী মোটরসাইকেল প্রতীকের আবুল কালাম আজাদের সমর্থকরা নৌকার প্রার্থীর সমর্থকদের বাড়িতে হামলা চালায়। এসময় বাড়িতে থাকা ব্যক্তিরা আহত হন। এমনই অভিযোগ পাওয়া যায় স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল কালাম আজাদের বিরুদ্ধে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আহত একজন অভিযোগকারী বলেন, বঙ্গবন্ধুকে ভালোবাসি। তাই বঙ্গবন্ধুর নৌকা যাকে দেয়া হবে আমরা তার পক্ষেই ভোট দিব। নৌকায় ভোট দিয়েছি বলে কালামের লোকজন আমাদের বাড়িতে হামলা চালায়।

দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মহব্বত কবির জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। হামলাকারী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। ইতিমধ্যেই দুই জনকে আটক করা হয়েছে। বাকিদের আটকের চেষ্টা চলছে।

স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল কালাম আজাদের সাথে মুটফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

আপনার মতামত দিন
- Advertisement -