ময়মনসিংহে বাস-অটোরিকশার সংঘর্ষে নিহত সাতজনের ছয়জনই একই পরিবারের

accident
ছবি : সংগৃহীত

ময়মনসিংহের তারাকান্দায় বাস ও সিএনজিচালিত অটোরিকশার সংঘর্ষে তিন দিনের নবজাতকসহ একই পরিবারের ছয়জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় অটোরিকশার চালকসহ সাতজন মারা গেছেন। নিহতরা সবাই অটোরিকশার যাত্রী ছিলেন।

নিহতরা হলেন-নেত্রকোনা জেলার পুর্বধলা গ্রামের পেচুয়ালেঞ্জী গ্রামের ফারুক হোসেন, তার স্ত্রী মাসুমা খাতুন, তাদের তিন দিন বয়সী নবজাতক শিশু, ফারুকের বোন জুলেখা খাতুন, ভাই নিজাম উদ্দিন এবং ভাবি জোসনা বেগম।

- Advertisement -

অটোরিকশা চালকের নাম রাকিবুল হাসান। তিনি ময়মনসিংহ সদর উপজেলার চরলক্ষীপুর গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে।

রোববার দুপুরের দিকে উপজেলার নেত্রকোণা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের গাছতলা বাজার এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে শ্যামগঞ্জ হাইওয়ে থানার ওসি নয়ন দাস বলেন, এ ঘটনায় বাসটি উদ্ধার করা সম্ভব হলেও চালক পালিয়ে গেছেন।

নিহতদের স্বজন মাসুম বলেন, তিন দিন আগে ময়মনসিংহের একটি প্রাইভেট হাসপাতালে সিজারের মাধ্যমে মাসুমা একটি ছেলেসন্তানের জন্ম দেন। রোববার সকালে সবাই ওই নবজাতকের বাড়িতে যান। সিএনজিতে করে বাড়িতে ফেরার পথে নবজাতকসহ ঘটনাস্থলেই সবাই মারা যান।

এ বিষয়ে তারাকান্দা থানার ওসি আবুল খায়ের বলেন, দুপুরের দিকে নেত্রকোনা থেকে ঢাকাগামী হযরত শাহ জালাল পরিবহনের একটি বাস নেত্রকোনাগামী অটোরিকশাকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই অটোরিকশার সাতজন মারা যান। তাদের মধ্যে তিনজন পুরুষ, তিনজন নারী ও এক শিশু রয়েছেন। নিহতের মধ্যে তিন দিন বয়সী নবজাতকসহ একই পরিবারের ছয়জন রয়েছেন। তাদের লাশ হাইওয়ে থানায় রাখা হয়েছে।

আপনার মতামত দিন
- Advertisement -