রাজধানীতে ফুল বিক্রেতা কিশোরীকে ঝোপের মধ্যে নিয়ে দলবদ্ধ ধর্ষণ

rape
ছবি: প্রতীকী

রাজধানীর মিরপুর এলাকায় রাস্তায় ফুল বিক্রি করত কিশোরীটি (১২)। মা ছয় মাস আগেই তাকে ছেড়ে চলে গেছেন। ফুল বিক্রি করেই ভাসমান জীবন চলে তার। ২ জানুয়ারি সন্ধ্যায় মিরপুর-১–এর গোলচত্বর এলাকায় ধর্ষণের শিকার হয়েছে সে।

রাকিব (১৬) ও সুমন (১৯) নামে দুজন তাকে ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ কিশোরীর। রাকিব ধর্ষণের কথা স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। এ ঘটনায় মিরপুর থানায় মামলা হয়েছে।

- Advertisement -

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মিরপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপরারেশন) মেজবাহ উদ্দিন।

পুলিশ জানিয়েছে, ভুক্তভোগী কিশোরীকে চিকিৎসা শেষ টঙ্গীর কিশোরী উন্নয়ন কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে। এর আগে ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (সিএমএম) আদালতে তার জবানবন্দি নেয়া হয়েছে।

মিরপুর থানার ওসি মুস্তাজিজুর রহমান টেলিফোনে বলেন, ২ জানুয়ারি সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে মিরপুর-১–এর গোলচত্বর এলাকায় ঝোপের মধ্যে পথশিশুটি দলবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হয়। শিশুটি অচেতন অবস্থায় রাস্তায় পড়েছিল। স্থানীয়রা ৯৯৯–এ ফোন করে ঘটনাটি পুলিশকে জানায়। পরে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান–স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করে।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ সূত্রে জানা গেছে, ধর্ষণের শিকার শিশুকে ২ জানুয়ারি তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসার পর শিশুটির অবস্থা আগের থেকে ভালো হওয়ায় তাকে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মেজবাহ উদ্দিন বলেন, অভিযুক্ত দুজনকেই গ্রেফতার করা হয়েছে। অনেক খোঁজাখুঁজির পরও শিশুটির মা–বাবার খোঁজ পাওয়া যায়নি। শিশুটির নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে কিশোরী উন্নয়ন কেন্দ্রে পাঠানো হয়েছে।

আপনার মতামত দিন
- Advertisement -