সরিষাবাড়ীতে লবণ সংকট গুজব রটনার অভিযোগে আটক ৫

sarishabari news
লবণ সংকটের গুজব প্রচারের সময় আটক পাঁচজন যুবককে থানায় নিয়ে যায় পুলিশ।

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে লবণ সংকট গুজব রটনার অভিযোগে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট শিহাব উদ্দিন আহমেদ এর নির্দেশে ৫ জনকে আটক করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) বিকেলে পৌরসভার আরামনগর বড় বাজার এলাকার বাধন ষ্টোরের সামনে থেকে তাদেরকে আটক করা হয়েছে বলে জানাগেছে।

পুলিশ সুত্রে জানাযায়, মঙ্গলবার সকাল থেকেই উপজেলার বিভিন্ন স্থানে লবনের কৃত্তিম সংকটের অপপ্রচার ছড়িয়ে পড়ে। সাধারন মানুষের মধ্যে একধরনের আতঙ্ক দেখা দেয়। দ্রুত অপপ্রচার নিয়ন্ত্রনে স্থানীয় প্রশাসন গুজবে কান না দেয়ার অনুরোধ জানিয়ে মাইকিংসহ বিভিন্ন প্রচারনা শুরু করে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট শিহাব উদ্দিন আহমেদ ও সরিষাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ লবণ সংকট গুজব বিষয়ে বাজারের ব্যবসায়ী ও বর্নিক সমিতির নেতাদের অনুরোধ করেন।

- Advertisement -

বিকেলে পৌরসভার আরামনগর বাজারের বাধন ষ্টোরের সামনে শামীম উদ্দিন নামের এক ব্যাক্তি ইউটিউবে লাইভ দিয়ে লবণ সংকট প্রচারনা চালাচ্ছিল। অপর চার জন ক্যামারায় তা ভিডিও ধারণ করছিল। এ সময় তারা বাজারে সচেতনতা মূলক প্রচারনা চালাতে গেলে গুজব রটনাকারীদেকে পাকড়াও করেন। পরে তাদেরকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট শিহাব উদ্দিন আহমেদ পুলিশ কে আটক করার র্নিদেশ প্রদান করেন।

পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে সরিষাবাড়ী উপজেলা সাতপোয়া গ্রামের করিম শেখের ছেলে শামীম উদ্দিন (২১), পোগলদিঘা ইউনিয়নের সাইঞ্চের পাড় গ্রামের মৃত রশিদ মিয়ার ছেলে আকাশ (১৮), সাইঞ্চের পাড় গ্রামের মৃত আঃ হাই এর ছেলে রাফি মিয়া (১৬), ডোয়াইল ইউনিয়নের চর বালিয়া গ্রামের হাসমত আলীর ছেলে সাগর (১৭), মহাদান ইউনিয়নের মনির উদ্দিনের ছেলে শিফাত মিয়া (১৬)কে আটক করে থানা নিয়ে আসে পুলিশ। উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে জনসাধারন কে গুজবে কান না দেয়র জন্য মাইকিং প্রচারনা চালাচ্ছে।

লবণ সংকটের আশঙ্কায় উপজেলার বিভিন্ন হাট বাজারের মুদি দোকান গুলোতে লবণ ক্রয়ে ভীড় করে। বিশেষ করে গরু খামারীরা ছিল বেশী আতঙ্কিত। খোলা লবণ প্রতি বস্তা ৫৫০ থেকে ১হাজার টাকা এবং প্যাকেট জাত লবন প্রতি কেজি নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে ১০ থেকে ১৫ টাকা বেশি দরে বিক্রি করা হচ্ছিল বলে ক্রেতারা জানান।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শিহাব উদ্দিন আহমেদ দেওয়ানগঞ্জ নিউজকে জানান, এক শ্রেনীর অসাধূ ব্যবসায়ী অধিক মুনাফা অর্জনের জন্য বাজারে লবনের কৃত্রিম সংকট সৃষ্টির অপচেষ্টা চালাচ্ছে। দেশে লবনের কোন ঘাটতি নেই। কাজেই ব্যবসায়ীদের লবণ সংকট কারসাজিতে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য সকলের প্রতি অনুরোধ করেন তিনি।

আপনার মতামত দিন
- Advertisement -