স্ত্রীর মরদেহ রেখে হাসপাতাল থেকে পালালেন স্বামী

image
ফাইল ছবি

স্ত্রীর নিথর মরদেহ রেখে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ (মমেক) হাসপাতাল থেকে পালিয়ে গেলেন স্বামী। জামালপুরের বকশীগঞ্জের বাসিন্দা নবী হোসেনের স্ত্রী সে।

আজ শনিবার (৪ সেপ্টেম্বর) ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ  হাসপাতালে মারা যান গৃহবধূ শারমিন (২২)। মারা যাওয়ার সংবাদ শুনেই লাপাত্তা স্বামী।

- Advertisement -

স্থানীয়রা জানান, বকশীগঞ্জ উপজেলার আলী মাহামুদের ছেলে নবী হোসেনের সঙ্গে বিয়ে হয় প্রায় দু’বছর আগে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার বাশতলী এলাকার আব্দুস সামাদের মেয়ে শারমিনের। এর কিছুদিন পর থেকেই পারিবারিক কলহ শুরু হয়। এর জেরে শুক্রবার (৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নিজ ঘরের গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন শারমিন। তবে এ ঘটনা দেখতে পেয়ে শ্বশুর-শাশুড়িসহ আত্মীয়-স্বজন শারমিনকে উদ্ধার করে বকশীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করায়। পরবর্তীসময়ে তার অবস্থার অবনতি হলে তাকে মমেক হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করানো হয়। শনিবার দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। এর পর পরই স্ত্রীর মরদেহ হাসপাতালে রেখেই পালিয়ে যান স্বামী নবী হোসেন।

এদিকে, শারমিনের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে নবী হোসেন বাড়িতে হামলা ও তার বাবা-মাকে আটক করে রাখে স্থানীয়রা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে নবী হোসেনের বাবা-মাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

এ বিষয়ে বকশীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিকুল ইসলাম সম্রাট জানান, বিষয়টি আমরা যেনেছি। ওই গৃহবধূর মরদেহের ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন দেখে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আপনার মতামত দিন
- Advertisement -